যশোরের বসুন্দিয়া ঘুণির আছমা আক্তার নামের এক মহিলার মামলার হাত থেকে বাঁচতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২, ২০২২, ৯:৪৬ অপরাহ্ন / ৩৯৯
যশোরের বসুন্দিয়া ঘুণির আছমা আক্তার নামের এক মহিলার মামলার হাত থেকে বাঁচতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

বিশেষ প্রতিনিধি

যশোরের বসুন্দিয়া ঘুণির আছমা আক্তার (৩৬) নামের এক মহিলার মামলার হাত থেকে বাঁচতে এলাকাবাসীরা মানববন্ধন করেছেন। গতকাল বুধবার (২নভেম্বর) সকাল ১০টার সময় মুজিব সড়ক রোডে প্রেসক্লাব যশোরের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। আছমা আক্তার বসুন্দিয়া ঘুণি এলাকার আবু জাফর ব্যাপারীর মেয়ে। এ সময় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, আব্দুল গফুর ব্যাপারী, শফিক ভুইয়া, আবুল কালাম আজাদ, শাহজালাল ব্যাপারী, শাহ আলম ব্যাপারী, জেসমিন আক্তার, সৈয়েদা আক্তার ,নাসরিন বেগম, নাজমা বেগম ,নাসিমা আক্তার, অন্তু রহমান, জামাল হোসেন, নাজিম হোসেন, কামরুল হোসেন, খয়বার খাঁ, বাদশা মিয়া, টুকু হোসেন, মিল্টন হোসেন ,আব্বাস ইসলাম ,মোতালেব হোসেন, নুর ইসলাম, নুর আলি, রফিকুল ইসলাম, আলা ব্যাপারী, করিম ব্যাপারী, সবুজ হোসেন, আফরোজা বেগম, সেতু বেগম, বিলকিস বেগম, মরিয়ম বেগমসহ ভুক্তভোগীরা। মানববন্ধন চলাকালে ভুক্তভোগী এলাকাবাসীরা বলেন, আসমা আক্তার নামের মহিলা এলাকার সাধারণ মানুষদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানী মুলক মামলা দিয়ে আসছেন। এলাকাবাসীরা তার কাছে অসহায় হয়ে পড়েছেন। ওই নারী মাদকাসক্ত এবং এলাকায় আপত্তিকর কাজে বাঁধা দেয়ায় মিথ্যা মামলার ঘানি টানছেন তারা। অপকর্মের প্রতিবাদ করায় তিনি মনিরুল ইসলামকে স্বামী দাবি করে আদালতে মিথ্যা মামলা করে হয়রানী করে আসছেন। সেই সাথে একের পর এক ষড়যন্ত্রের শিকার করে যাচ্ছেন। নিজের ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে বর্বোচিত নির্যাতন করে দিনের পর দিন ভাতের পরিবর্তে পশু খাদ্য খাইয়ে এবং এসিডে মুখ ঝলসে দিয়ে অসংখ্যবার পত্রিকার শিরোনাম হয়েছেন। আছমা আক্তার এলাকায় বেপরোয়া চলাফেরা করতেন। একটার পর একটা বিয়ের প্রলোভন করে ফাঁদে ফেলে অর্থ আদায়ের একাধিক অভিযোগ রয়েছেও তার বিরুদ্ধে। এমনকি অনেকেই তার কাছ থেকে ডাকাতি ও ধর্ষণ মামলা থেকে বাদ যায়নি। বর্তমান যশোর আদালত সংলগ্ন এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকেও সে একের পর এক ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছেন। মিথ্যা মামলার ঘানি টানতে এবং ষড়যন্ত্রের মুখে পড়েছেন বলে ভুক্তভোগীরা অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বলেন। এই মানববন্ধনে শতাধিক মানুষ অংশগ্রহন করেন। এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা মামলাবাজ ভয়ংকর এ নারীর হাত থেকে পরিত্রাণ চেয়ে সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ।