লালমনিরহাটে তিন জেএমবি সদস্যের যাবজ্জীবন, তিন জনের ১৪বছর জেল


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৮, ২০২২, ১২:২১ অপরাহ্ন / ৩৪১
লালমনিরহাটে তিন জেএমবি সদস্যের যাবজ্জীবন, তিন জনের ১৪বছর জেল

লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটে জেএমবির ছয় সদস্যকে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে ১৪বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন লালমনিরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোঃ মিজানুর রহমান। একই আদালত ওই ছয় আসামীর মধ্যে তিন জনকে অস্ত্র আইনে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন।

সোমবার (৭ নভেম্বর) দুপুরে আসামীদের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করা হয়।

সন্ত্রাসবিরোধী আইনে সশ্রম কারাদণ্ড পাওয়া জেএমবি সদস্যরা হলো পাটগ্রাম উপজেলার পাটগ্রাম ইউনিয়নের টেপুরগাড়ী এলাকার আজিজার রহমান মাস্টারের ছেলে ফজলে রাব্বী, একই এলাকার নুর ইসলামের ছেলে সোহেল রানা, পাটগ্রাম পৌরসভার সাহেবডাঙা এলাকার খাদেম শাহের আলীর ছেলে মোঃ সাহিন, একই এলাকার আলাউদ্দিন মুন্সীর ছেলে শাহ আলম, লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ মুশরত মদাতী এলাকার জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে হাসান মাসুদ ও একই এলাকার কুড়িবিশ্বাস মাঠিয়ালপাড়া এলাকার এরশাদুল হকের ছেলে গোলাম রব্বী। এছাড়া একই মামলায় অস্ত্র আইনে ফজলে রাব্বী, মোঃ সাহিন ও হাসান মাসুদকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

আলোচিত এই মামলা থেকে বেকসুর খালাস পেয়েছেন আজাহারুল ইসলাম ও শফিকুল ইসলাম আলাল। তাদের কারাগার হতে মুক্তি পেতে কোনও বাধা নেই বলেও আদেশ দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত।

মামলার রায়, আদালত সূত্র ও মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ২ আগস্ট রংপুর র‌্যাব-১৩ এর একটি দল পাটগ্রাম পৌরসভার পোস্ট অফিসপাড়া এলাকার এমএম প্লাজা মার্কেটের ‘ডায়না ফ্যাশন টেইলার্স’ থেকে দুটি বিদেশি পিস্তল, একটি শর্টগান, গুলি, বিভিন্ন নামে ২৪টি জিহাদি বইসহ ফজলে রাব্বী, মোঃ সাহিন, হাসান মাসুদ, শাহ আলম, সোহেল রানা, গোলাম রব্বানী, আজাহারুল ইসলাম ও শফিকুল ইসলাম আলালকে গ্রেফতার করা হয়। রংপুর র‌্যাবে কর্মরত এসআই আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে মামলা করেন এবং আসামীদের পাটগ্রাম থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন।

আদালতের পিপি অ্যাড. আকমল হোসেন বলেন, জেএমবি সদস্য ফজলে রাব্বী, সাহিন, হাসান মাসুদ, শাহ আলম, সোহেল রানা ও গোলাম রাব্বীকে সন্ত্রাসবিরোধী আইন ২০০৯ এর ৬(২) ঈ, ৭, ৮, ৯, ১০ ও ১৩ ধারা অনুযায়ী ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও পাঁচ হাজার টাকা অর্থ জরিমানা, অনাদায়ে প্রত্যেককে উক্ত অপরাধে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন আদালত। একই ঘটনায় অস্ত্র আইনের ১৮৭৮ এর ১৯(এফ) ও ১৯(এ) ধারা অনুযায়ী হাসান মাসুদ, ফজলে রাব্বী ও মোঃ সাহিনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, আসামীরা যতদিন হাজতবাস করেছেন। তা দণ্ড থেকে বাদ যাবে।

পাটগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ ওমর ফারুক বলেন, শুনেছি জেএমবির ছয় আসামীকে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে ১৪বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর সশ্রম কারাদণ্ড এবং ওই ৬জনের মধ্যে ৩জনকে অস্ত্র আইনে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আদালত দুই আসামীকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন।