সাতকানিয়ায় গরুর খামার থেকে ১রাতে ৬টি গরু চুরিঃ থানায় অভিযোগ


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২, ২০২২, ৭:৫৬ অপরাহ্ন / ৮০৩
সাতকানিয়ায় গরুর খামার থেকে ১রাতে ৬টি গরু চুরিঃ থানায় অভিযোগ

সাতকানিয়া প্রতিনিধি ঃ

চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার কেওচিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের আহনাফ এগ্রো ফার্ম নামক খামার থেকে ৫লক্ষ ২০হাজার টাকা দামের ৬টি গরু চুরি হয়েছে বলে অজ্ঞাতনামা ১০/১২জন উল্লেখ করে সাতকানিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে!
গত ৩১অক্টোবর সোমবার দিবাগত রাত ২টার দিকে সাতকানিয়া উপজেলার কেওচিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের নতুন পাড়ার মুখে অবস্থিত আব্দুল মোমেনের আহনাফ এগ্রো ফার্ম থেকে গরু চুরির এ ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ সূত্রে জানা যায়।
সূত্র জানায়, গত ৩১অক্টোবর সোমবার দিবাগত রাত ১১ টার দিকে বাদী মিজান প্রতিদিনের মত খামারের দরজা বন্ধ করে ঘুমাতে যায়। রাত ২টার দিকে অভিযোগের বাদী মিজান ঘুমন্ত অবস্থায় থাকাকালে চোর খামারে ঢুকে অভিযোগের বাদী ঘুমন্ত মিজানকে মুখ চেপে ধরে লোহার রড দিয়ে আঘাত করে হাত পা রশি দিয়ে বেঁধে রেখে গরু গাড়িতে তোলে নিয়ে যায় বলে জানা যায়।এমনকি পাশের বাড়িতে থাকা নওশা মিয়াকেও হাত পা বাঁধা অবস্থায় মিজানের রুমে এনে ফেলে রাখে।তারা ভয়ে শোর চিৎকার করলে তাদেরকে চোরেরা মারধর করে এবং প্রাণে মেরে ফেলার ভয়ভীতিও দেখায়। চোর গরু নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় গাড়ির আওয়াজের শব্দ শুনতে পায় বাদী মিজান ও আশরাফ।চোর চলে যাওয়ার অনেক্ষণ পর মিজান ও আশরাফ শোর চিৎকার করলে ১নভেম্বর মঙ্গলবার সকাল ৫টার দিকে পথচারীরা এসে তাদেরকে উদ্ধার করে।এরপর তারা দেখতে পায় চোর খামারের ভিতরে ঢুকে সি সি ক্যামেরা ভাংচুর করেছে, গরু নিয়ে গেছে, বাহিরের কাটা গ্রিল দেখতে পায় এবং সিসি ক্যামেরার মডেম নিয়ে যায় বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন।

এব্যাপারে অভিযোগের বাদী মিজানুর রহমান জানান যে, আমার খামারে ছয়টি গরু চুরি হয়ে যায়, প্রতিটি গরুর দাম নিম্নে ৯০ হাজার টাকা, আমি থানায় অভিযোগ করলে এখন পর্যন্ত থানা থেকে কোন প্রকার সহযোগিতা পাইনি আসামি ও ধরে নি।

গরু চুরি ও মারধরের বিষয় সম্পর্কে সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান যে, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ নেওয়া হয়েছে, তদন্ত চলছে অচিরেই আসামি ধরা পড়বে।