আমতলীতে পৌনে দুই লক্ষ জাল টাকাসহ চক্রের ৩ সদস্য আটক


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২২, ২০২২, ৯:৪৩ অপরাহ্ন / ৩৭০
আমতলীতে পৌনে দুই লক্ষ জাল টাকাসহ চক্রের ৩ সদস্য আটক

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
বরগুনার আমতলী উপজেলার খেকুয়ানি ও ডাক্তারবাড়ী নামক স্থান থেকে পৌনে দুই লক্ষ জাল টাকাসহ ৩ জনকে শুক্রবার দুপুরে আটক করেছে পুলিশ। আজ শনিবার সকালে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলার কেওতা গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে জাল টাকা চক্রের প্রতারক রাকিব শুক্রবার দুপুরে আমতলীর গুলিশাখালী ইউনিয়নের খেকুয়ানির বাজারে বসে ডাব খেয়ে ৫০০ টাকার একটি জাল নোট দেয়। দোকানদারের সন্দেহ হলে তারা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে রাকিবকে আটকের পর তার দেহ তল্লাশি করে তার নিকট থেকে আরো ৩ হাজার টাকার জাল নোট উদ্ধার করে। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী চাওড়া ইউনিয়নের ডাক্তারবাড়ী নামক স্থান থেকে ওই দিন জীবন শেখ এবং ইমরান শেখ নামে আরো দুই জনকে আটক করে তাদের নিকট থেকে ১০ হাজার টাকার জাল নোট উদ্ধার করে।
আটক ৩ জনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পার্শ্ববর্তী পটুয়াখালী শহরের পানামা হোটেলের ৩০৩ নম্বর কক্ষে আমতলী থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে আরো ১ লক্ষ ৫৭ হাজার ৫০০ টাকার জাল নোট উদ্ধার করে। এ নিয়ে মোট ১ লক্ষ ৭০ হাজার ৫০০ টাকার জাল নোট উদ্ধার হয়।
আটক জীবন শেখ বাগেরহাট জেলার রামপাল উপজেলার কুল্লা গ্রামের ওলিমুজ্জামানের ছেলে। আর ইমরান একই এলাকার খেজুরা গ্রামের শফিকুলের ছেলে। তারা ৩ জন পটুয়াখালীর পানামা হোটেলের ৩০৩ নম্বর কক্ষ ভাড়া নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে জাল টাকার ব্যবসা করে আসছে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জ্ঞান কুমার দাস বলেন, আটক ৩ জন দীর্ঘদিন ধরে এই অঞ্চলে জাল টাকার ব্যবসা করে আসছে। এই ব্যবসার জন্য তারা পটুয়াখালীর পানামা হোটেলের একটি কক্ষ ভাড়া নিয়ে সেখানে বসবাস করত।
আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) রনজিৎ কুমার সরকার বলেন আটক ৩ জনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করা হয়েছে। ওই মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আজ শনিবার সকালে তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।