ফুলপুরে স্বামীর দায়ের কোপে ৩ সন্তানের জননী ৪ মাসের গর্ভবতী স্ত্রী খুন


প্রকাশের সময় : অক্টোবর ২০, ২০২২, ৮:৫৬ অপরাহ্ন / ৩৯৪
ফুলপুরে স্বামীর দায়ের কোপে ৩ সন্তানের জননী ৪ মাসের গর্ভবতী স্ত্রী খুন

 

ময়মনসিংহ ফুলপুর প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের ফুলপুরে পাষণ্ড এক স্বামীর দায়ের কোপে ৪ মাসের গর্ভবতী রোজিনা খাতুন (৩০) নামে ৩ সন্তানের জননী এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে উপজেলার পয়ারী ইউনিয়নের গড় পয়ারী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, রোজিনা ফুলপুর পৌরসভার গোদারিয়া গ্রামের মৃত তহিদ মিয়া ও রোকেয়া দম্পত্তির মেয়ে। তাকে একই উপজেলার গড় পয়ারী গ্রামের ইদরিস আলীর ছেলে রিকশা চালক আনারুল ইসলামের নিকট ১০ বছর আগে বিয়ে দেওয়া হয়েছিল। বিয়ের পর থেকেই পারিবারিক নানা বিষয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ চলে আসছিল। যে কোন তুচ্ছ ঘটনায় প্রায়ই সে রোজিনাকে মারধর করতো। আজ রাতে তাদের মাঝে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে পাষণ্ড স্বামী আনারুল তার স্ত্রী রোজিনাকে দা দিয়ে কুপিয়ে ক্ষত বিক্ষত করে উঠানে নিয়ে ফেলে রাখে। এ বিষয়ে জানতে ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে সেখানে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। রোজিনার মা বিধবা রোকেয়া মেয়ের মৃত্যু শোকে বার বার মূর্ছা যাচ্ছিলেন। কান্নাজড়িত কণ্ঠে সংবাদ প্রতিনিধি কে তিনি জানান, রোজিনার বড় মেয়ে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী মীম আমাকে মোবাইলে জানায় যে, ‘নানাী তুমি তাড়াতাড়ি আস। আব্বা মাকে দাও দিয়া কোপাইছে। মা মইরাছে। ঘরে মাইরা উঠানে ফালায়া রাখছে। তুমি তাড়াতাড়ি আস।’ এ খবর পেয়ে রোকেয়া দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তিনি যাওয়ার পর তার দিকেও দা নিয়ে তেড়ে আসে আনারুল। পরে কম কথা বলে কোনমতে রোজিনাকে নিয়ে তিনি হাসপাতালে আসেন। হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক রোজিনাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে সংবাদ পেয়ে ফুলপুর থানার এসআই বকুল সাহা ও এসআই আব্দুল খালেক দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসআই বকুল সাহা এ প্রতিনিধিকে জানান, রোজিনার মাথায়, পেটে, হাতে ও গালে কোপের দাগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পাষণ্ড স্বামী আনারুলসহ তাদের বাড়ির সবাই পলাতক রয়েছে। এ বিষয়ে ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনী পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।