রাজপথে নিজের জীবন উৎসর্গ করে হলেও এবার ভোটারবিহীন সরকারকে উৎখাত করবো – সিরাজগঞ্জে পাপিয়া


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৯, ২০২২, ৯:৩৫ অপরাহ্ন / ৬৬৯
রাজপথে নিজের জীবন উৎসর্গ করে হলেও এবার ভোটারবিহীন সরকারকে উৎখাত করবো – সিরাজগঞ্জে পাপিয়া

 

তোফায়েল আহমেদ, আহমেদ,সিরাজগঞ্জ :

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেত্রী সৈয়দা আসিফা আশরাফী পাপিয়া বলেছেন; অবৈধ, অনির্বাচিত,দখলদার সরকারের দুর্নীতির কারণে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য সাধারণের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। এতে দেশের মানুষ আজ দিশেহারা হয়ে পড়েছে। কারণ ভোটারবিহীন অবৈধ সরকারের কিছু সুবিধাভোগী দুর্নীতিবাজ ব্যবসায়ী চক্রের হাতে দৈনন্দিন ভোগ্যপণ্যের বাজার ব্যবস্থাপণা জিম্মি হয়ে আছে। মূল্যবৃদ্ধির এই দুর্নীতিবাজ চক্রের শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে সরকারের চালিকা শক্তিরাই। শর্ষেতে ভূত থাকলে ভূত তাড়াবে কে? রক্ষক যখন ভক্ষক হয়, তখন যা হওয়ার তাই হচ্ছে বাংলাদেশে। এদেশের মানুষ দুর্নীতিবাজ ও ভোটারবিহীন সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায়না বলেই তারা প্রতিবাদ মুখড় হয়ে উঠেছে। তারা এখন বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে রাজপথে বেরিয়ে আসছে এবং রাস্তা দখল করছে। এতে সরকার পতনের আন্দোলন আজ চুড়ান্ত পর্যায়ে পৌছে গেছে। চুড়ান্ত আন্দোলনের মুখে অবৈধ সরকার টিকে থাকতে পারবেনা। অনেক হামলা-মামলা, জুলুম নির্যাতন সহ্য করেছি,এখন পিঠ দেয়ালে ঠেকেগেছে আর সহ্য করা হবেনা,প্রয়োজনে নিজের জীবন উৎসর্গ করে হলেও এবার এই অবৈধ সরকারকে উৎখাত করবোই করবো ইনশাআল্লাহ।

শনিবার(১৯ নভেম্বর) বিকেলে সিরাজগঞ্জ শহরের আমলাপাড়া ঈদগাঁ মাঠে শহর বিএনপি আয়োজিত এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহী ও ১০ ডিসেম্বর ঢাকার মহাসমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে শহর বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ভুইয়া সেলিমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুন্সি জাহেদ আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় তিনি আরো বলেন,এখন যে মূল্যস্ফীতি,যে অর্থনৈতিক দুরবস্থা এর সবকিছুর মূলে হচ্ছে সরকারের দুর্নীতি। এই দুর্নীতির কারণেই দ্রব্যমূল্য বাড়ছে এবং পণ্যমূল্যের পাগলা ঘোড়ার দাপটে মধ্যবিত্ত,নিম্নমধ্যবিত্ত ও হতদরিদ্ররা পিষ্ট হচ্ছে প্রতিনিয়ত। অবৈধ সরকারের দুর্নীতির কারণে দেশে দেখা দিয়েছে দুর্ভিক্ষের পদধ্বনি। একদিকে ফ্যাসিস্ট এই আওয়ামী লীগ সরকারের অত্যাচার,নির্যাতন,নিপীড়ন এবং হামলা-মামলায় দলীয় নেতা-কর্মীদের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙ্গে গেছে আরেকদিকে দ্রব্যমুল্যের উর্ধ্বগতিে সাধারণ মানুষ নাভিশ্বাস হয়ে উঠেছে। এই জালিম সরকারের জুলুম থেকে মুক্ত, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনা ও তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠাসহ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে সাধারণ মানুষ শরীক হচ্ছে এবং সেই ধারাবাহিকতায় বিভাগীয় সমাবেশগুলোতে অংশগ্রহন করছে। তিনি সরকারের বিদায় ঘন্টা বাঁজাতে আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহী ও ১০ ডিসেম্বর ঢাকার মহাসমাবেশ সিরাজগঞ্জের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে অংশগ্রহণ করার উদাত্ত আহ্বান জানান।

এসময় জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আনিসুজ্জামান পাপ্পু, উপদেষ্টা রাশেদ কবীর চান্দু, যুগ্ন- সাধারণ সম্পাদক নুর কায়েম সবুজ, সাব্বির হোসেন ভূঁইয়া সাফি, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাইদ সুইট,মির্জা মোস্তফা জামান, দপ্তর সম্পাদক তানভীর মাহমুদ পলাশ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সহ-সম্পাদক সাংবাদিক দুলাল উদ্দিন আহমেদ, সহ-প্রচার সম্পাদক সাংবাদিক রেজাউল করিম খাঁন, জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবু, জেলা মহিলা দলের সভাপতি সাবিনা ইয়াসমিন হাসি, জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক এলেমা খাতুন, সদর উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি এডভোকেট নাজমুল ইসলাম, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সেরাজুল ইসলাম সেরাজসহ সকল অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।