সাংবাদিক শফিউজ্জামান রানাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কারাদণ্ডের ঘটনায় “বিএমএসএফ” এর পক্ষ থেকে তদন্ত-পর্যবেক্ষন টিম গঠণ


প্রকাশের সময় : মার্চ ১১, ২০২৪, ১১:৩৮ অপরাহ্ন / ১৯১
সাংবাদিক শফিউজ্জামান রানাকে  ভ্রাম্যমাণ আদালতের  কারাদণ্ডের ঘটনায় “বিএমএসএফ” এর পক্ষ থেকে তদন্ত-পর্যবেক্ষন টিম গঠণ

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

শেরপুরের নকলায় দৈনিক দেশ রূপান্তর পত্রিকার সাংবাদিক শফিউজ্জামান রানাকে কথিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে কারাদণ্ডের ঘটনায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ) এর পক্ষ থেকে তদন্ত-পর্যবেক্ষন টিম গঠণ করা হয়েছে। সোমবার ১১ মার্চ সংগঠনের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ও নির্বাহী কমিটির সভাপতি আহমেদ আবু জাফর কমিটিকে আগামী ৭ দিনের মধ্যে সরেজমিনে উপস্থিত হয়ে সংশ্লিষ্ট পক্ষ-বিপক্ষের বক্তব্য গ্রহন করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেন।

৯ সদস্য বিশিষ্ট এ টিমে বিএমএসএফ’র কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মোফাজ্জল হোসেন, সহ-সম্পাদক আবুজার বাবলা, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল বাতেন বাচ্চু, উপ-প্রচার সম্পাদক মো: রইছ উদ্দিন, শিক্ষা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য মো: নুরুল হুদা বাবু, কার্য নির্বাহী সদস্য জি কে রাসেল, মিজানুর রহমান আকন্দ, সফিউল্লাহ আনসারী ও আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ।

বিএমএসএফ’র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ঐদিন আসলে কী ঘটেছিল তা সরেজমিনে জানা দরকার বলে সংগঠনটি মনে করে। যতদূর জানাগেছে, সরকারী কম্পিউটার কেনায় অনিয়মের ঘটনার সংবাদ প্রকাশের জন্য তথ্য চেয়ে আবেদন করেন সাংবাদিক শফিউজ্জামান রানা। আর এই তথ্য চাওয়াকে কেন্দ্র করে শেরপুরের নকলা ইউএনও সাদিয়া উম্মুল বানিনের নির্দেশে এসিল্যান্ড মো: শিহাবুল আরিফকে দিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে যে প্রক্রিয়ায় কারাদণ্ড দিয়ে সাংবাদিক শফিউজ্জামান রানাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে তা গ্রহনযোগ্য নয়। এটি বাক স্বাধীনতা ও স্বাধীন সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে খারাপ দৃষ্টান্ত। তদন্ত টিমকে সহায়তার জন্য শেরপুর জেলার সাংবাদিকসহ বিএমএসএফ’র শেরপুর এবং জামালপুর জেলা নেতৃবৃন্দকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।